০২,ডিসেম্বর'২০১৭











স্টাফ রিপোর্টার \ হবিগঞ্জ সদর উপজেলার নিজামপুর ইউনিয়নের তিন গ্রামে সাড়াশি অভিযান চালিয়ে ১৭ দাঙ্গাবাজকে আটক করেছে পুলিশ। পরে ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাদেরকে কারাদন্ড প্রদান করেন। গতকাল শুক্রবার বিকেলে হবিগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এটিএম আজহারুল ইসলাম প্রত্যেককে দুই মাস করে কারাদন্ডের আদেশ দেন। অভিযানকালে দাঙ্গাবাজদের বাড়িতে তলøাশি চালিয়ে ১শ’টি ফিকল, ২শ’ টেটা, ৫০টি ধারালো কুচা ও বলøমসহ বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। দÐপ্রাপ্তরা হল, (২য় পৃষ্ঠায় দেখুন) বাবুল মিয়া (৪০), আলাউদ্দিন (৪৫), কাছম আলী (৫০), কুদরত আলী (৫০), রানা মিয়া (২০), আব্দুল জলিল (৬৫), মধু মিয়া (৫০), সিজিল মিয়া (৪০), লিলু মিয়া (৩৫), জিতু মিয়া (৩৫), আব্দুল মজিদ (৪৫), আব্দুন নুর (১৮), হাজী আব্দুস সামাদ (৫০), রহিম (৪৫), জিলু মিয়া (২৫), রাজু মিয়া (৩৫) ও সামছুল হক (৩০)। গতকালই তাদেরকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়। এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নিজামপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান তাজ উদ্দিন তাজ ও সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়ালের মাঝে দীর্ঘদিন ধরে আধিপত্য বি¯Íার নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এ বিরোধের জের ধরে প্রায়ই উভয়পÿের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ প্রেÿিতে গত বৃহস্পতিবার গভীর রাত থেকে গতকাল শুক্রবার ভোর পর্যন্ত সদর থানার ওসি ইয়াছিনুল হকের নেতৃত্বে পুলিশ নিজামপুর ইউনিয়নের দরিয়াপুর, নিজামপুর ও শরীফাবাদ গ্রামে বাড়ি বাড়ি তলøাশি করে দেশীয় অস্ত্রসহ ১৭ ব্যক্তিকে আটক করে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হলে তাদেরকে কারাদÐ দেয়া হয়। হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি ইয়াছিনুল হক জানান, নিজামপুর ইউনিয়নে প্রায়ই সংঘর্ষ হচ্ছে। তাই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বাড়ি বাড়ি তলøাশি করে দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয় এবং ১৭ দাঙ্গাবাজকে আটক করে সাজা দেয়া হয়।

Back



Editor & Publisher : Mohammed Shaban Miah
Daily Protidiner Bani, Commercial Area Hobigonj-3300, Bangladesh. Tel & Fax: 0831-53333, Mobile: 01711-782208 E-mail : protidinerbani@gmail.com
Copyright © 2010 Protidinerbani.com. All rights reserved.